ইসলাম পৃথিবীর নিকৃষ্ট ধর্মই না সবচেয়ে কঠিন ধর্মের একটি

ইসলাম পৃথিবীর নিকৃষ্ট ধর্মই না সবচেয়ে কঠিন ধর্মের একটি?

ইসলাম পৃথিবীর নিকৃষ্ট ধর্মই না সবচেয়ে কঠিন ধর্মের একটি। আপনি এখন গুগলে লিখুন নিকৃষ্ট এবং কঠিন ধর্ম- নাম্বার ওয়ান ইসলাম। এই ধর্মে ৫ ওয়াক্ত নামাজ, হিজাব, জাকাত, এই ধর্ম পালন করলে মদ খাওয়া যায় না, ইবাদতের স্বাধীনতা নেই এত্ত কিছু। তারপরও, বিশ্বের ৪২০০ টি ধর্মের মধ্যে নাম্বার ওয়ান ক্রমবর্ধমান ধর্ম হচ্ছে ইসলাম। BBC এর মতে, ২০৭০ সালের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ ধর্ম হবে এই ইসলাম তো কঠিন ধর্মের কঠিন যে ইবাদত তার নাম হলো রোজা। রোজা রেখে লাভটা কি?

মেডিকেল সায়েন্সে রোজার অপর নাম ❝অটোফেজি❞ এই ক্রিয়া-কৌশল আবিষ্কার করার জন্য ২০১৬ সালে চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন জাপানের বিজ্ঞানী ইওশিনোরি ওসুমি। অটোফেজির অর্থ: ‘আত্মভক্ষণ’ বা নিজেকে খেয়ে ফেলা। মোদ্দাকথা, আমাদের শরীর যখন না খেয়ে থাকে তখন ক্ষুধা সহ্য করতে না পেরে, সুস্থ কোষগুলো দেহের মধ্যে মৃত আর দূষিত কোষগুলোকে খাওয়া শুরু করে দেয়।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, ৩০% প্রোটিন ঠিকভাবে সংশ্লেষ হতে পারে না ফলে এদের ধ্বংস করা, শরীর থেকে বের করে দেয়া কিংবা অন্য উপায়ে কাজে লাগানো জরুরি। কেননা শরীরে এরা থাকলে বিভিন্ন রোগের সৃষ্টি হবে, কিন্তু আলহামদুল্লিয়াহ ❝রোজা বা অটোফেজি❞ প্রক্রিয়া এ ক্ষতিকারক প্রোটিনকে ধ্বংস করে বা কাজে লাগায়।

বিজ্ঞানী ইওশিনোরি ওসুমি পরীক্ষা করে দেখিয়েছেন লাইসোজোম (কোষের অভ্যন্তরে সাইটোপ্লাজমের সাইটোসলের এক ধরনের অতি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রকোষ্ঠ) শুধু আমাদের ডাস্টবিন নয়, আমাদের দেহ এটা থেকে প্রয়োজনীয় প্রোটিন প্রক্রিয়াজাত করে। অর্থাৎ এটা ডবল কাজ করে, একদিকে কোষ তার নিজ আবর্জনামুক্ত করে, অপরদিকে সেই আবর্জনাকে আবার প্রক্রিয়াজাত করে আবার শরীরের নানাবিধ কাজে লাগায়।

এই দুনিয়া অটোফেজি সম্পর্কে জানতে পারলো এই কিছুদিন ধরে, কিন্তু আমাদের ধর্ম আলহামদুল্লিয়াহ ১৪০০ বছর আগে থেকে অটোফেজি সম্পর্কে বলে গিয়েছেন? ভুল অটোফেজি তো শুধু শারীরিক উন্নতি ঘটায় কিন্তু, রোজা শারীরিক, মানসিক, আবেগীয় এবং আধ্যাত্মিক উন্নতি ঘটায় কারণ, আল্লাহ পাক কোরআনে বলেছেন ❝ওয়া আনতা সুউমু খাইরুল লাকুম ইনকুনতুম তা’লামুন❞- ❝যদি রোজা রাখো তবে তাতে রয়েছে তোমাদের জন্য কল্যাণ, যদি তোমরা সেটা উপলব্ধি করতে পারো❞ (সূরা বাকারাহ : ১৮৪)

সবশেষে, সংযমের এই মাস পৃথিবীতে একরকম আর বাংলাদেশে আরেক। এই মাস বাঙালিদের জন্য মাহে প্রোফাইল পিকচার আপলোড মাস, মাহে ইফতার পার্টি মাস, মাহে মূল্যবৃদ্ধি মাস, মাহে ইফতার পার্টি করে ছবি দেব ফ্যাবুতে মাস। এইসব ট্রেন্ড চালু করা ফেরেস্তাদের আমরা এখনো চিনতে পারিনি…সেলুকাস!!

Leave a Comment: