যাচাই বাছাই না করে ধর্মীয় দাঙ্গা লাগানো এই জাতির ডিএনএ তে !

যাচাই বাছাই না করে ধর্মীয় দাঙ্গা লাগানো এই জাতির ডিএনএ তে !

হিজাবি খা*কি গুলা আমাদের পূজা মণ্ডপে কি করে!! হিন্দু নামের এক আইডি এর এই স্টেটাস বুলেটের গতিতে শেয়ার করে দোজাহানের অশেষ নেকি হাসিল করছে ঈমানী ভাইয়েরা। প্রসঙ্গত বাংলাদেশে অনলাইন এ সক্রিয় নাস্তিক আছে ধরেন ৩০ জন আর তাদের আছে জনপ্রতি ৩০০ ফেক আইডি। তাই তারা ঝোপ বুঝে কোপ লাগিয়ে দেয় আর ঈমানী ভাইয়েরা তাদের করে দেয় হিট। ওই আইডি তে শুধু একটাই পোস্ট, আর ঐটাই ভাইরাল। যাইহোক, কোন কিছু দেখে যাচাই বাছাই না করে ধর্মীয় দাঙ্গা লাগানো এই জাতির D N A তে। বাঙালির জীবনে চলতে কি লাগে? অযুত পরিমান ফ্রিজের মধ্যে আইসক্রিম আর বক্সে……..

যাইহোক, আসুন দেখি অমুসলিমদের প্রতি রাসূল ﷺ এর ব্যবহার।

এক বৃদ্ধ ইহুদি ধীরগতিতে হাটছিলেন। আমরা জানি রাসূল ﷺ অনেক দ্রুত গতিতে হাঁটতেন। বৃদ্ধ ইহুদিকে টপকে সামনে গেলে তার মানে কষ্ট হতে পারে তাই তিনি হাঁটার গতি স্লো করে দিলেন যতক্ষন পর্যন্ত বৃদ্ধ পথ না পাল্টিয়ে অন্য গন্তব্যে গেলেন।

এক বেদুইন একবার মসজিদে প্রস্রাব করে দিলেন, সাহাবীরা তাকে ধরে মারতে গেলেন, রাসূল ﷺ শান্ত গলায় তাদের থামিয়ে ওই লোককে ডেকে বললেন, মসজিদে আমরা প্রার্থনা করি, এটা শৌচালয়ের জায়গা না, এই বলে তিনি তাকে যেতে দিলেন। (বুখারী- ৬১২৮) এতো বিনয়ী ব্যবহার পেয়ে ওই বেদুইন মুসলিম হয়ে যান।

আদ দিহমাহ মানে খৃস্টান আর ইহুদি ট্রাইব এদের প্রতি মুসলমানদের তিনি অর্ডার ﷺ দিয়েছিলেন, তোমরা তাদের গার্ডিয়ান, তাদের অর্থ লাগলে অর্থ দাও, সেবা লাগলে সেবা, তাদের প্রতি বিশ্বাস ভঙ্গ করো না কারণ তারাও ইসলামিক স্টেট এর সম্মানিত সিটিজেন।

নাজরানের সময়ে একদল ক্রিস্টান রাসূল ﷺ এর কাছে এসে বললেন: এখন আমাদের উপাসনার সময়, আমরা কি আপনার মসজিদে উপাসনা করতে পারি? রাসূল বিনয়ের সাথে বললেন অবশ্যই।

ইহুদি ক্রিস্টান, অমুসলিম, কাফের তোমাদের কাছে বিচার চাইতে আসলে উত্তম ফয়সাল কর, নাইলে তিনি (রাসূল ) বলেছেন: কোন মুসলিম দেশে বসবাসরত অমুসলিমের উপর যদি কোন মুসলিম জুলুম করে, যে জান্নাত তো দূর, জান্নাতের সাবাশ ও পাবে না, যদিও জান্নাতের সাবাশ ১৪০০০ হাজার বছর দুরুত্ব থেকেও পাওয়া যায়। (আল বুখারী- ৬৯১৪)

নবুয়্যাতের প্রথম ১৩ বছর মক্কাতে, এমন কোন দিন নেই রাসূল ﷺ গায়ে থুতু, ময়লা, নষ্ট পানি, তার মেয়ে রুকাইয়া (রা) তাকে জোরপূর্বক ডিভোর্স, সাহাবীর প্রেগনেন্ট বৌ, তার পেটে ছয় মাসের বাচ্চা, সেই সাহাবীর বৌকে পেটে চুরি মেরে তার মাসুম বাচ্চা হত্যা পরে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণে ওই সাহাবীর বউয়ের মৃত্যু।

সুমাইয়া বিনতে খাইয়াৎ (রা), ইসলামের পঞ্চম মুসলিম এবং প্রথম শহীদ। তাকে আবু জেহেল ও তার দলবল ধরে এনে দিনের বেলা জনসম্মুখে, তার নিজের স্বামীর সমানে, নিজের সন্তানের সামনে, রাসূল ﷺ এর চোখের সামনে, দুই পা ফাক করে তার গোপনাঙ্গ দিয়ে ধারালো বর্শা ঢুকিয়ে সে বর্শা মাথা দিয়ে বের করে তাকে মক্কার রাস্তায় উঁচু করে মাটিতে গেঁথে রেখেছিলো। তারপরও এই সেই রাসূল ﷺ যিনি ক্ষমাই করে গেলেন,

এই সেই রাসূল ﷺ যে একজন ইহুদি মাকে গিয়ে বলেছিলেন মা আমি আপনার মুজদুর হতে পারি, আপনার বস্তা মাথায় নিয়ে আপনাকে এগিয়ে দিয়ে আসতে পারি, এই সেই রাসূল ﷺ যিনি একজন ইহুদীর মৃত্যুতে কেঁদেছেন.. এই সেই রাসূল……💕💕💕…অনেকে আবার জিহাদ টেনে আনতে পারেন রাসূল ﷺ জীবদ্দশায় ৮৪ টি যুদ্ধ হয় আর এতে অমুসলিমদের নিহত সংখ্যা মাত্র ১০১৪।

পৃথিবীর বুকে এমন কোন যুদ্ধ আমি দেখিনি যেখানে এতো কম সংখ্যক মানুষ।……. বুঝেই নেন বাদবাকি। আর আপনি? তার উম্মত? ভাই স্বাধীনতা পূর্ববর্তী এই দেশে হিন্দু ছিল ২৫% এখন ৪% আর আরব দেশে এখনো অমুসলিমদের সংখ্যা ৪ মিলিয়ন- ডিফারেন্সটা দেখুন।

Leave a Comment: