আপনার স্বামী রাতের বেলা যদি বেড ছেড়ে গৃহকর্মীর রুমে যায়, তাতে দোষ কার?

আপনার স্বামী রাতের বেলা যদি বেড ছেড়ে গৃহকর্মীর রুমে যায়, তাতে দোষ কার?

আপনার স্বামী রাতের বেলা যদি বেড ছেড়ে গৃহকর্মীর রুমে যায়, তাতে দোষ কার? গৃহকর্মীর নাকি আপনার স্বামীর? আপনি কর্মজীবী মহিলা, আপনার ৬ মাসের দুধের বাচ্চা গৃহকর্মীর হাতে মানুষ হচ্ছে, আপনি আবিষ্কার করলেন সে আপনার বাচ্চাকে অত্যাচার করছে; গৃহকর্মী হিসেবে সে খারাপ হতে পারে কিন্তু মা হিসেবে আপনি ব্যর্থ। ঘটানাটা দেখে আমার নিজের আত্মা কেঁপে উঠছে ফেনীর আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারের মালিক কর্তৃক তার গৃহ পরিচিকা নির্যাতন।

একটা মানুষ কত্ত বড় জানোয়ারের বাচ্চা যে হতে পারে এই ছবি না দেখলে আমি বুঝতে পারতাম না অন্যদিকে কয়েকদিন আগে কর্নেলের স্ত্রী আয়শা সম্পর্কে জানলাম। এই মহিলা তার বাসার কাজের মেয়েকে মেরে ওই মেয়ের মুখ থেতলে দিয়েছেন। কি আশা করছেন? প্রতিবাদ? প্রতিবাদ তা নয়ই উল্টা ওমেন চ্যাপ্টারে সুপ্রীতি ধর কর্নেলের বৌয়ের পক্ষে সাফাই গাইছেন প্রবন্ধ লিখে: গৃহকর্মী যখন গৃহকর্ত্রী হতে চায়। গৃহকর্মীরা নাকি এখন গৃহকর্তীদের নির্যাতন করে…wow

আসেন পিছনে চলে যাই,

৮১০ খিস্টাব্দ, একজন মুসলিম দাসী বন্দি হলো এক কাফির সম্রাটের হাতে, কাফির সম্রাট ওই মহিলাকে সজোরে চপেটাঘাত করলেন, ওই মহিলা আকাশ কাঁপিয়ে চিৎকার তুললেন, ইয়া মুতাসিম!! এইটা শুনে কাফির সহ তার দলবল অট্ট হেসে বললো – হ তোমারে বাচাইতে মুতাসিম আসতেসে, কালো সাদা ঘোড়ায় চেপে, হে হে। ওই রাজ্য থাকতো এক মুসলিম গুপ্তচর। সে খবরটা বাগদাদের খলিফা আল মুতাসিমের কাছে পাঠালো। মুতাসিম তখন রাজ্যে বসে রাজকীয় পানীয় পান করছিলো, ঘটনা শুনে তার চোখ রক্ত বর্ণ হয়ে গেলো।

অন দ্যা স্পট, মুতাসিম ১ টা না, ১ হাজার না, ১০ হাজার না, ১৭০০০ হাজার!! সাদা কালো ঘোড়া কিনে ১৭ হাজার কমান্ডো নিয়ে কাফির রাজ্য আক্রমণ করলো, আধাঘন্টার মধ্যে ওই কাফের সম্রাজ্য ধুলিস্মাৎ। আল্লাহর কসম, ইতিহাস সাক্ষী রক্তের হলি!! সব কাফির কুচুকাটা। তারপর সেই কাফির king এর গলায় শেকল পড়িয়ে ওই দাসীর সামনে এনে মুতাসিম বললো: একে বল indeed আমাকে বাচাইতে মুতাসিম আসছে সাদা কালো ঘোড়ায় চেপে।

একবার বাইজান্টিয়ামে এক মুসলিম দাসীর মাথার হিজাব ধরে টান মারসিলো এক রোমান। মহিলা কান্না করে চিঠি লিখছিলো, আল মুতাসিম কে। আল মুতাসিম রোমান কিং কে সাথে সাথে রিপ্লাই দিলো: ওই!! ইয়া কাল্ব আর রাম- ওই রোমান কুত্তা!! তোর সৈন্য বাহিনী লড়তে আর বাঁচতে পছন্দ করে, আর সৈন্য বাহিনী লড়তে আর মরতে পছন্দ করে। ঘটনা নিষ্পত্তি কর!! নইলে আমি তোরে রাস্তার কুত্তা বানাব।

আরও পড়ুন —শহরতলীর অলিতে গলিতে তাদের নিয়েই গল্প হউক

মুতাসিম ১৭ হাজার মানুষ নিয়ে একজন দাসীর আব্রু আর সম্মান রক্ষা করলেও আমাদের ১৭ কোটি বাঙালির মধ্যে একজনও মুতাসিম নাই। এই বাঙালি সামান্য money, power, fame পাইলে….আপনাদের শরীরে এতো চর্বি কেন। রাজন হত্যার সময় আমরা করি ভিডিও..ঐদিন video দেখলাম এক হিজাবি আপু বাপের বয়সী রিক্সাওয়ালার জুতা দিয়ে পিটাচ্ছে।

আর্মির বৌ-রা বনানী গুলশানে designated area বাইরে গাড়ি পার্ক করে ট্রাফিক পুলিশকে গালি দেয়। মেয়র, কোটিপতি আর এলিটরা বাসার কাজের মেয়েদের গায়ের উপর গরম পানি ঢেলে দেয়। আর্মির বৌ আয়শা লতিফ ডিম্ ভাজি পুড়িয়ে ফেলার অপরাধে ১১ বছরের শিশুর গায়ে হাত seriously!! যেহেতু এই বাঙালির দেশে মুতাসিমের মতো শাসক নাই, সেহেতু আপনাদের বিচার হবে না কিন্তু আল্লাহর বিচার Just wait and watch…Karma baby!!

Leave a Comment: